স্টিফেন ডব্লু.হকিং ।

স্টিফেন উইলিয়াম হকিং, সিএইচ, সিবিই, এফআরএস, পিএইচডি (ইংরেজি: Stephen William Hawking; ৮ জানুয়ারি, ১৯৪২ – ১৪ মার্চ ২০১৮) বিশিষ্ট ইংরেজ তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী ও গণিতজ্ঞ হিসেবে বিশ্বের সর্বত্র পরিচিত ব্যক্তিত্ব। তাকে বিশ্বের সমকালীন তাত্ত্বিক পদার্থবিদদের মধ্যে অন্যতম গণ্য করা হয়। হকিং ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর থিওরেটিক্যাল কসমোলজির গবেষণা প্রধান ছিলেন। তিনি ১৯৭৯ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের লুকাসীয় অধ্যাপক ছিলেনএবং ২০০৯ সালের ১ অক্টোবর এই পদ থেকে অবসর নেন। এছাড়াও তিনি কেমব্রিজের গনভিল ও কেইয়ুস কলেজের ফেলো হিসেবে কাজ করেছেন।

পদার্থবিজ্ঞানে হকিংয়ের দুইটি অবদান সর্বত্র স্বীকৃত। প্রথম জীবনে সতীর্থ রজার পেনরোজের সঙ্গে মিলে সাধারণ আপেক্ষিকতায় সিংগুলারিটি সংক্রান্ত তত্ত্ব। হকিং প্রথম অনিশ্চয়তার তত্ত্ব কৃষ্ণ বিবর-এর ঘটনা দিগন্তে প্রয়োগ করে দেখান যে কৃষ্ণ বিবর থেকে বিকিরিত হচ্ছে কণা প্রবাহ। এই বিকরণ এখন হকিং বিকিরণ (অথবা কখনো কখনো বেকেনস্টাইন-হকিং বিকিরণ) নামে অভিহিত  তিনি রয়্যাল সোসাইটি অব আর্টসের সম্মানীয় ফেলো এবং পন্টিফিক্যাল একাডেমি অব সায়েন্সের আজীবন সদস্য ছিলেন এবং ২০০৯ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার, প্রেসিডেন্সিয়াল মেডেল অব ফ্রিডম, খেতাবে ভূষিত হন। ২০০২ সালে বিবিসির “সেরা ১০০ ব্রিটন্‌স” জরিপে তিনি ২৫তম স্থান অধিকার করেন। তার নিজের তত্ত্ব ও বিশ্বতত্ত্ব নিয়ে রচিত বই কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস (আ ব্রিফ হিস্টরি অব টাইম) দিয়ে তিনি বাণিজ্যিক সফলতা লাভ করেন এবং বইটি রেকর্ড ভঙ্গ করা ২৩৭ সপ্তাহ ব্রিটিশ সানডে টাইমসের সর্বোচ্চ বিক্রিত বইয়ের তালিকায় ছিল।

শারীরিকভাবে ভীষণরকম অচল এবং এমায়োট্রফিক ল্যাটারাল স্ক্লেরোসিস বা লাউ গেহরিগ নামক একপ্রকার মোটর নিউরন রোগে আক্রান্ত হয়ে ক্রমাগতভাবে সম্পূর্ণ অথর্বতার দিকে ধাবিত হন, তবুও বহু বছর যাবৎ তিনি তার গবেষণা কার্যক্রম সাফল্যের সঙ্গে চালিয়ে যান। বাকশক্তি হারিয়ে ফেলার পরও তিনি এক ধরনের শব্দ-উৎপাদনকারী যন্ত্রের সাহায্যে অপরের সাথে যোগাযোগ করতেন। তিনি ২০১৮ সালের ১৪ই মার্চ ৭৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন।

জন্ম স্টিফেন উইলিয়াম হকিং
৮ জানুয়ারি ১৯৪২
অক্সফোর্ড, যুক্তরাজ্য
মৃত্যু ১৪ মার্চ ২০১৮ (বয়স ৭৬)
ক্যামব্রিজ, যুক্তরাজ্য
কর্মক্ষেত্র সাধারণ আপেক্ষিকতা কোয়ান্টাম মহাকর্ষ
প্রতিষ্ঠান ক্যামব্রিজ ক্যালিফোর্নিয়া ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি পেরিমিটার ইনস্টিটিউট ফর থিওরেটিক্যাল ফিজিক্স
শিক্ষা সেন্ট আলবান্স স্কুল
প্রাক্তন ছাত্র ইউনিভার্সিটি কলেজ, অক্সফোর্ড (বিএ)
ট্রিনিটি হল, ক্যামব্রিজ (এমএ, পিএইচডি)
সন্দর্ভসমূহ Properties of Expanding Universes (১৯৬৬)
পিএইচডি উপদেষ্টা ডেনিস শিয়ামা
অন্যান্য 
শিক্ষায়তনিক উপদেষ্টা
রবার্ট বারমান
পিএইচডি ছাত্ররা ব্রুস অ্যালেন রাফায়েল বোসো বার্নার্ড কার ফে ডকার ক্রিস্তফ গালফার গ্যারি গিবন্স থমাস হার্টগ রেমন্ড লাফ্লেম ডন পেজ ম্যালকম পেরি য়ু চংচাও
পরিচিতির কারণ হকিং বিকিরণ পেনরোজ-হকিং তত্ত্ব বেকেনস্টাইন-হকিং সূত্র হকিং শক্তি গিবন্স–হকিং আনসাৎজ গিবন্স–হকিং প্রভাব গিবন্স–হকিং মহাশূন্য গিবন্স–হকিং–ইয়র্ক বাউন্ডারি টার্ম থর্ন–হকিং–প্রেস্কিল বাজি কৃষ্ণবিবর
তত্ত্বীয় সৃষ্টিতত্ত্ব
কোয়ান্টাম মহাকর্ষ
উল্লেখযোগ্য
পুরস্কার
পূর্ণ তালিকা : অ্যাডামস পুরস্কার (১৯৬৬) এডিংটন পদক (১৯৭৫) ম্যাক্সওয়েল পদক ও পুরস্কার (১৯৭৬) গাণিতিক পদার্থবিদ্যায় ড্যানি হাইনম্যান পুরস্কার (১৯৭৬) হিউ পদক (১৯৭৬) আলবার্ট আইনস্টাইন পদক (১৯৭৮) রয়্যাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সোসাইটির স্বর্ণ পদক (১৯৮৫) ডিরাক পুরস্কার (১৯৮৭) উলফ পুরস্কার (১৯৮৮) প্রিন্স অব অ্যাস্টুরিয়াস পুরস্কার (১৯৮৯) অ্যান্ড্রু গেম্যান্ট পুরস্কার (১৯৯৮) নেলর পুরস্কার ও লেকচারশিপ (১৯৯৯) লিলিয়েনফেল্ড পুরস্কার (১৯৯৯) রয়্যাল সোসাইটি অব আর্টসের আলবার্ট পদক (১৯৯৯) কপলি পদক (২০০৬) প্রেসিডেন্সিয়াল মেডেল অব ফ্রিডম (২০০৯) ফান্ডামেন্টাল ফিজিক্স পুরস্কার (২০১২) বিবিভিএ ফাউন্ডেশন ফ্রন্টিয়ারস অব নলেজ পুরস্কার (২০১৫)}}
স্ত্রী/স্বামী জেন ওয়াইল্ড (বি. ১৯৬৫; বিচ্ছেদ. ১৯৯৫) এলেন মেসন (বি. ১৯৯৫; বিচ্ছেদ. ২০০৬)
সন্তান(গণ) ৩, লুসি হকিং সহ

Stephen W. Hawking – স্টিফেন ডব্লু.হকিং ।

এখানে আছে ০২টি বই ।
০২টি বই এর তালিকা নিচে দেয়া হলো :

সূচিপত্র
১.কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস ।
২.কৃষ্ণগহ্বর এবং শিশু মহাবিশ্ব ও অন্যান্য রচনা ।

“এক অ্যাপে সকল বই”
স্টিফেন ডব্লু.হকিং এর অ্যাপটি
ডাউনলোড করুন